চাকরিদাতা ৬ তথ্যে অনাগ্রহী

চাকরিদাতা ৬ তথ্যে অনাগ্রহী

১. বয়স
প্রার্থীর বয়স কত তা নিয়ে চাকরিদাতাদের কোনো আগ্রহ নেই। কিংবা কত সালে স্নাতক শেষ করেছেন, সে তথ্যও তাদের কাছে মূল্যহীন।
২. বেতন
প্রার্থীর বর্তমান বেতন কত, কিংবা আগে কত পেতেন—এ ধরনের বিষয় সাধারণত চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠান এড়িয়ে যেতে চায়। এ ছাড়া প্রার্থীর উচিত নয় নিজের অতীত বেতনের খবর জানানো। প্রার্থী যোগ্য হলে অতীত বেতন কোনো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নয়।
৩. জীবনযাপন ব্যয়
জীবনযাপনে প্রার্থীর কত টাকা খরচ হয়, তা জানা প্রতিষ্ঠানের জন্য জরুরি নয়। জীবনযাপনে কত টাকা প্রয়োজন, তা জানার ইচ্ছাও নেই তাদের। প্রার্থী হিসেবে বেতন নিয়ে সবারই একটা লক্ষ্য থাকে। প্রার্থীকে কথা বলতে হবে সেই লক্ষ্য মাথায় রেখেই।
৪. অন্য সাক্ষাৎকার
অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানে সাক্ষাত্কার আছে কি না—তা জানাটাও চাকরিদাতাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ নয়।
৫. গুরুত্ব
চাকরিটা হয়তো আপনার খুবই জরুরি। আবার হয়তো মোটেও জরুরি নয়। প্রতিষ্ঠান সাধারণত এর কোনোটিই জানতে চায় না।
৬. বর্তমান কর্মক্ষেত্র
কোথাও কর্মরত থাকলে চাকরিটা আপনার কতটুকু ভালো লাগছে কিংবা খারাপ লাগছে, তা সাক্ষাত্কারে জানতে চাওয়া হয় না। একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরিরত অবস্থায় অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানে সাক্ষাত্কার দিতেই পারেন। তাই বলে সাক্ষাত্কারে বর্তমান প্রতিষ্ঠানের সুনাম কিংবা বদনাম করা উচিত হবে না।
source:www.kalerkantho.com
It's only fair to share...Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *